Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on skype

ট্যালকম পাউডার ব্যাবহারের সঙ্গে ক্যানসারের সম্ভাবনার একটা যোগসূত্র আছে বলে বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে। এ বিয়ে গবেষকদের চুলচেরা বিশ্লেষণের সঙ্গে চলছে নানা তর্ক-বিতর্ক। আমাদের দেশে এ নিয়ে যতটা সোরগোল, তার থেকে অনেক বেশি হৈ চৈ বিদেশে। আমেরিকায় ট্যালকম পাউডার মেখে এক মহিলার মৃত্যুর পর আদালত মহিলার পরিবারকে বিশাল পরিমান টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বলে রায় দিয়েছেন।

ট্যালকম পাউডার, ক্যানসারের সম্ভাবনা

ট্যালকম পাউডার ব্যাবহারের ফলে মুলতঃ ওভারিয়ান ক্যানসার হতে পারে বলে গবেষনায় উঠে এসেছে। সূত্রের খবর, ওই মার্কিন মহিলা দীর্ঘদিন ধরে একটি বহুজাতিক কোম্পানির পাউডার ব্যাবহার করছিলেন। কিন্তু কখনই ভাবেননি যে নামী কোম্পানির পাউডার তাঁর জীবন কেড়ে নেবে।

ট্যালকম পাউডার আসলে কী

ট্যালকম পাউডার আসলে একধরণের ম্যাগ্নেসিয়াম সিলিকেট। প্রাচীন আরবীয় যুগ থেকে ট্যাল্ক নামের বস্তুটি ব্যাবহার হয়ে আসছে। এই ট্যাল্কের মধ্যে থাকা অ্যাসবেস্টস নামক পদার্থটি থেকেই  মানুষের প্রবল ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে। প্রসাধন হিসেবে মহিলারাযেমন ব্যবহারকরেন তেমনি বিভিন্ন শিল্প ও কল-কারখানায় নানা প্রোডাক্ট উৎপাদনের ক্ষেত্রে এই পাউডার এর ব্যাবহার হয় ফলে প্রচুর মানুষ এই ক্ষতিকর পদার্থটির সংস্পর্শে আসে। ট্যাল্ক খুব সহজে আদ্রতা শোষন করতে পারে বলেই অনেকেই এই ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করেন। গরমের দেশগুলিতে এই ট্যালকম পাঊডারের ব্যাবহার অনেক বেশি।

কীভাবে শরীরের ক্ষতি করতে পারে

গবেষণা বলছে, অনেক সময় ইউটেরাস ওভারিয়ান ক্যালোসিয়ান টিউবের মধ্য দিয়ে ওভারিতে চলে যেতে পারে। বিভিন্ন গবেষণায় এভাবেই ভিন্ন ভিন্ন মতবাদ উঠে এসেছে। যা অনেকটা মিশ্র মতবাদ বলা যেতে পারে। আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটির গবেষণা বলছে, এতে ওভারিয়ান ক্যানসারের ঝুঁকি থাকলেও সেই ঝুঁকি ছোটখাট। অন্যদিকে, ইন্টারন্যাশানাল রিসার্চ অফ ক্যানসার মনে করে, দু’পায়ের মাঝে আদ্রতা শোষন করতে যদিও ট্যালকম ব্যাবহারে ওভারিয়ান ক্যানসারের ঝুঁকি কম, তবে নিয়মিত ব্যাবহারের করলে তা বাড়ে। পাশাপাশি, ইউরোপিয়ান ট্যাল্ক ইন্ডাস্ট্রি এমন এক গবেষণার কথা সমর্থন করে বলেছে, ওভারিয়ান ক্যানসারের ঝুঁকি বৃদ্ধির সঙ্গে ট্যালকমের কোনও সম্পর্ক নেই। ক্যানসার রিসার্চ ইউ কে বলছে, তারা এ ব্যাপারে একেবারেই পরিষ্কার নয়। তবে পাঊডার ব্যাবহারে কম ঝুঁকির কথা তারা স্বীকার করে নিয়েছে।

সাম্প্রতিক গবেষণা ও ক্যানসারের সম্ভাবনা

ট্যাল্ক ব্যাবহার এবং এপিথেলিয়াল ওভারিয়ান ক্যান্সারের মাঝে একটা যোগসূত্র যে আছে তা অস্বীকারের কোনও জায়গা নেই। ২০১৩ সালের এক বিশ্লেষণে পরিষ্কারভাবে উঠে এসেছে, পায়ের মাঝে ট্যালকম পাঊডার ব্যবহারের ফলে কম থেকে মাঝারি ধরণের ঝুঁকি থাকে। বর্ডারলাইন ও ইনভেসিভ ওভারিয়ান ক্যানসারের ঝুঁকি বৃদ্ধির ব্যাপারে সতর্কও করা হয়েছে। তাদের অভিমত হল, নারীর অর্ন্তবাস এবং স্যানিটারি ন্যাপকিনে ট্যালকম ব্যাবহার বন্ধ করা খুবই জরুরী। তাদের পরামর্শ, ট্যালকম পাউডারের বিকল্প হিসেবে প্রাকৃতিক গুনসম্পন্ন কোনও ভেষজ পাউডার ব্যাবহার করা যেতে পারে। ভেষজ উপাদান দিয়ে তৈরি এমন পাউডারে ঝুঁকি আছে বলে এখনও জানা যায় নি।

Share on facebook
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp