টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধির ঘরোয়া উপায়

টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধির ঘরোয়া উপায় অত্যন্ত কার্যকারী সেইসমস্ত পুরুষদের জন্য যাদের টেস্টোস্টেরন লেভেল কমে গিয়েছে। টেস্টোস্টেরন হলো একটি পুরুষ প্রধান যৌন হরমোন যা টেস্টিসে ( শুক্রাশয়) উৎপন্ন হয় । এই হরমোনের প্রভাবে পুরুষের বিভিন্ন যৌন লক্ষণ এবং কার্যাবলী নিয়ন্ত্রিত হয়।  শরীরে   এই হরমোনের  উৎপাদনের ঘাটতি হলে বিভিন্ন শারীরিক এবং মানসিক সম্যস্যা  দেখা দেয় , যা পুরুষের ব্যক্তি , পারিবারিক এবং কর্মজীবনে বিভিন্ন নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

 কিন্তু সবচেয়ে ভালো কথা হল আপনি প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় খাবারের মাধ্যমে নিজের টেস্টোস্টেরন এর লেভেল কে সঠিক ভাবে ধরে রাখতে পা্রেন ।

তাই আজকে এই লেখার মাধ্যমে এমন কতগুলি খাবারের তালিকা তুলে ধরবো যেগুলো আপনার টেস্টোস্টেরন লেভেল বাড়ানোর জন্য  প্রতিদিনের খাবার তালিকায় রাখা প্রয়োজন ।

টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধির ঘরোয়া উপায়- কি কি খাবেন

রসুন

রসুন –    রসুন সাধারনত বাঙ্গালী সহ প্রায় সকলের ঘরে দৈনন্দিন রান্নাবান্নার মশলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়  এবং  এর ঔষধি গুনাগুন সম্পর্কে আমরা সকলেই কমবেশি  জানি । এটি যেমন দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে  ব্যাকটেরিয়াল এবং ভাইরাল ইনফেকশনের বিরুদ্ধে লড়তে  সাহায্য করে তেমনি  মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রনেও ভুমিকা রাখে । এর মধ্যে ডায়ালিল ডিসফ্লাইড  ( Diallyl disulfide )নামক এক বিশেষ ধরনের উপাদান থাকে যা  টেস্টোস্টেরন উৎপাদন কে বাড়ায় ।

মাশরুম – খুব সাধারন ভাবেই বলব যে আপনি যদি সত্যিই টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়াতে চান তাহলে মাশরুম খান । কেননা মাশরুম শুধু যে আপনার টেস্টোস্টেরন লেভেল বাড়াবে তা নয় বরং এর মধ্যে এমন কিছু এনজাইম রয়ছে   যেগুলো  টেস্টোস্টেরন লস ( low Testosterone ) কেও প্রতিরোধ করতে সক্ষম । তাছাড়া মাশরুম শরীরে রক্ত প্রবাহকে বাড়ায় , ইরেক্টাইল ডিসফাংশন কেও কম করে  ।

বাদাম – বাদাম হল জিঙ্ক ,ভিটামিন B, ভিটামিন E এবং প্রোটিন এর একটি ভালো উৎস । এর প্রত্যেকটি নিউট্রেন্ট  টেস্টোস্টেরন উৎপাদনে প্রয়োজনীয় উপাদান । তাই  প্রতিদিন আপনার খাদ্যতালিকায় ব্রাজিলিয়ান বাদাম, কাজু, আখরোট , চিনাবাদাম ইত্যাদি  রাখার চেস্টা করুন ।

 দই – দই আমরা সবাই কমবেশি  পছন্দ করি  । এর মধ্যে থাকা  প্রো বায়োটিক ব্যক্টেরিয়া টেস্টোস্টেরন এর জন্য উপকারী । 

ডিমের কুসুম

ডিমের কুসুম – ডিম হল একটি আদর্শ প্রোটিনের উদাহরন যাতে প্রয়োজনীয় সবকটি অ্যামাইনো এসিড রয়েছে । কিন্তু আপনি যদি টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়ানোর জন্য ডিম খেতে চান তাহলে আপনাকে  ডিমের হলুদ অংশ ( ডিমের কুসুম )  খেতে হবে । কারন ডিমের কুসুমে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন D3 পাওয়া যায় যা টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়ায় ।

সবুজ শাক – সবজি –  বিভিন্ন ধরনের সবুজ শাকসবজি যেমন ব্রকলি, বাঁধাকপি, পালং শাক ইত্যাদি  আপনার শরীরে  টেস্টোস্টেরন উৎপাদন কে বাড়াতে সাহায্য করে । তাই  আপনার  টেস্টোস্টেরন লেভেল  বজায় রাখতে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় প্রচুর পরিমানে সবুজ শাক সবজি যোগ করুন ।

বাঁধাকপি – এটি ইস্ট্রজেন এর  লেভেল কে হ্রাস করে ফলস্বরুপ আপনার টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে । সুতরাং বাঁধাকপি যদি আপনি পছন্দ নাও করে থাকেন তবু টেস্টস্টেরন এর সঠিক লেভেল বজায় রাখতে আপনার এটি খাওয়া উচিত ।

আদামানুষের উপর একটি গবেষনায় দেখা গেছে যে কোন ব্যাক্তি যদি নিয়মিত তিন মাস ধরে আদা খায় তাহলে অই ব্যাক্তির  টেস্টোস্টেরন উৎপাদন মোটামোটি ১৪ % বৃদ্ধি পায় । এটি শরীরে নাইট্রিক অক্সাইড উৎপাদন কে বাড়ায় এবং টেস্টিসে রক্তপ্রবাহ বাড়িয়ে  টেস্টোস্টেরন এর  উৎপাদন বৃদ্ধি করে ।

ডিমের কুসুম

নারকেল   বিভিন্ন গবেষণা অনুযায়ী  নারকেল হল পৃথিবীর সবচেয়ে স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্যের মধ্যে অন্যতম । এর ৯১% ফ্যাট হল টেস্টস্টেরন বুস্টিং স্যাচুরেটেড  ফ্যাটি  অ্যাসিড , যা আমাদের শরীরের টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়াতে সাহায্য করে ।

কুমড়োর বীজ – কুমড়োর বীজ হল জিঙ্ক , ম্যাগ্নেশিয়াম এবং ভিটামিন K এর  খুব ভালো উৎস । এরা প্রত্যেকেই টেস্টোস্টেরন উৎপাদন কে বৃদ্ধি করে । তাছাড়া এর মধ্যে রয়েছে টেস্টোস্টেরন বৃদ্ধিকারী  স্যাচুরেটেড  ফ্যাটি  অ্যাসিড ।

মুরগীর মাংস – সুসাস্থের জন্য মুরগীর মাংসে প্রয়োজনীয় ভিটামিন B থাকে , তা ছারাও এতে যথেষ্ট পরিমানে জিঙ্ক রয়েছে যা টেস্টোস্টেরন উৎপাদন কে বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে ।

সবশেষে এটাই বলবো যে উপরে উল্ল্যেখিত প্রত্যেকটি খাবারই কোনো না কোনও ভাবে আপনার টেস্টোস্টেরন লেভেল কে বাড়াতে উপকারী । সেজন্য প্রতিদিন এই খাবার গুলির মধ্যে আপনার সাধ্যমত কিছুনাকিছু  খাবার তালিকায় রাখতে সচেষ্ট হন । যাতে আপনার এবং আপনার পরিবারের  প্রত্যেকটা লোক সুন্দর সুস্বাস্থভাবে জীবন যাপন করতে পারে ।

Recent Posts

আমাদের সাম্প্রতিক পোষ্ট গুলি দেখতে ক্লিক করুন

Cancer (ক্যান্সার)

ক্যান্সারের লক্ষণ ও তার চিকিৎসা

এন্ডোমেট্রিয়াল ক্যান্সার বা জরায়ুর ক্যান্সার- লক্ষণ ও চিকিৎসা

সমগ্র বিশ্বে, মহিলাদের মধ্যে যত রকম ক্যান্সার হয় তাদের মধ্যে এন্ডোমেট্রিয়াল ক্যান্সার বা জরায়ুর ক্যান্সার চতুর্থ । যদিও ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে এই …

থাইরয়েড ক্যান্সার এর লক্ষণ

 থাইরয়েড গলার গোড়ায়  একটি ছোট, প্রজাপতি আকৃতির গ্রন্থি  যেখান থেকে  ট্রাইওডোথাইরোনিন (T3) এবং থাইরক্সিন (T4) হরমোন ক্ষরিত হয় এবং শরীরের বিভিন্ন বিপাকীয় …