Diet

নিজেকে ফিট রাখতে কেমন ডায়েট হওয়া উচিৎ? জানতে পড়ুন

শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমানোর উপায় খুঁজছেন? ভাবছেন ওজন কমিয়ে কি ভাবে দেখতে একটু স্লিম এন্ড ফিট হওয়া যায় ? বেশ তাহলে এই প্রবন্ধটি আপনার
ভিটামিন ই হল এমন একটি ভিটামিন, যা ফ্যাটে দ্রবীভূত। ভেজিটেবল অয়েল, মাংস, ফল, শাক সব্জি, পোল্ট্রির ডিম, শস্য দানা ইত্যাদি থেকে এই ভিটামিন পাওয়া
কোলাজেন কী ? কোলাজেন হল মানুষের শরীরের এক প্রকার সংযোজক কলা এবং শরীরের প্রোটিন কম্পোজিশনের এক তৃতীয়াংশ অংশ জুড়ে আছে এই কোলাজেন। অস্থির দৃঢ়
সুস্বাস্থ্যের জন্য পুষ্টি খুবই প্রয়োজনীয়।  অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস বিপাক ক্রিয়ার ভীষণ ক্ষতি করে এবং তার ফলে যেমন ওজন বৃদ্ধি ঘটে, তেমন শরীরের অন্যান্য অঙ্গ প্রত্যঙ্গ
দৈনিক খাদ্য তালিকায় ফ্যাট অনেকেই রাখতে চান না তবে এটা মাথায় অবশ্যই রাখা দরকার যে, কার্বোহাইড্রেট বা প্রোটিন র মতই ফ্যাট  বা লিপিড একটি
কিটো ডায়েটের জনপ্রিয়তার কারণ বিগত কয়েক দশকে হাল-ফ্যাশনে কিটো ডায়েট খুব জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। চটজলদি ওজন কমাতে বেছে নিচ্ছেন কিটো ডায়েটকে। কিটো কথাটি এসেছে
আয়রন আমাদের শরীরের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান যা আমাদের শরীরে রক্তাল্পতা দুর করে স্বাস্থ্যকর এবং শক্তিপূর্ণ থাকতে সাহায্য করে। আয়রন সমৃদ্ধ খাবার এর অভাবেই
এনজিওপ্লাস্টির পর ডায়েট কি হবে ? এরপর নিজেকে সুরক্ষিত থাকতে কি করবেন তাই নিয়ে চিন্তিত ? মুশকিল আসান করতে খাদ্য তালিকায় কি রাখবেন আর
প্রোবায়োটিক বলতে আমরা সেই সব জীবিত ব্যাকটেরিয়া বা ছত্রাকদের বুঝি যেগুলি আমাদের শরীরের পক্ষে উপকারী।আমাদের শরীর ভালো এবং খারাপ উভয় প্রকার ব্যাকটেরিয়াতে পরিপূর্ণ। প্রোবায়োটিককে
অবশ্যই জল পান করার উপকারিতা রয়েছে।তবে দৈনিক কতখানি জলের প্রয়োজন আপানার? জানেন কি ! মানুষের দেহে প্রায় ৬০% জল থাকে। বলা হয় একজন প্রাপ্তবয়স্ক