দাঁতের রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট (RCT) কি ? রুট ক্যানেলের প্রয়োজন কখন হয়?

দাঁতের রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট সম্পর্কে জানার আগে এটা জানার দরকার যে দাঁতের কি ধরনের সমস্যা হলেএই চিকিৎসা পদ্ধতির প্রয়োজন হয়, আসলে আমাদের প্রত্যেকটি দাঁত এনামেলর আস্তরণ বা একটি মজবুত প্রলেপ দ্বারা সুরক্ষিত থাকে, আমারা যে খাবর খাই সেগুলি দাঁতের ফাঁকে জমে থেকে ব্যাকটেরিয়ার চটচটে আস্তরণ সৃষ্টি করে যা আমাদের দাঁতের এনামেলকে ক্ষতিসাধন করতে থাকে। যেহেতু এই এনামেল ভীষণই মজবুত তাই সহজে দাঁতের ক্ষতি করতে পারে না কিন্তু দীর্ঘদিন দাঁতের যত্ন না নিলে ওই এনামেল ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে দাঁতের পরবর্তী স্তরগুলিও ক্ষয় হতে থাকে এবং গর্তের বা ক্যানেলের সৃষ্টি হয়। একসময় এই গর্ত বা ক্যানেল এতটাই গভীর হয় যখন এটি দাঁতের গোঁড়ায় থাকা নার্ভকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে। এই সময় কোনও খাবার খেলে সেই খাবারের অংশ দাঁতের গর্তে ঢুকে ওই নার্ভগুলি সংস্পর্শে আসে, তখনই আমাদের দাঁত শিরশির করে এবং ব্যথা হয় ।    

রুট ক্যানেলের প্রয়োজন কখন হয়?

 রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট এর প্রয়োজন তখনি হয় যখন আপনার দাঁতের এনামেল ক্ষয়ে গিয়ে দাঁতের ভিতরের নরম কোষ বা পাল্প সংক্রমিত হয়।

দাঁতের এই নরম পাল্প কখন ক্ষতিগ্রস্ত বা সংক্রমিত হয় ?

  • যদি দাঁতে গর্ত হয়
  • একটি দাঁতে একাধিবার চিকিৎসা পদ্ধতির(ডেন্টাল) প্রয়োগ হলে
  • কোনও কারণে দাঁত ভেঙ্গে গেলে অথবা ফাটল ধরলে।

কি ভাবে এই রুট ক্যানেলের চিকিৎসা করা হয় ?

১। আনেস্থেশিয়ার প্রয়োগ

প্রথমে আপনার ডেন্টিস্ট আক্রান্ত দাঁতের গোঁড়ায় বা মাড়িতে বিশেষ ইঞ্জেকশানের মাধ্যমে স্থানটিকে অবশ করে দেন, যাতে সংক্রমিত পাল্প বের করার সময় কোনও রকম ব্যাথা বা শিরশিরানির অনুভূতি না থাকে।

দাঁতের সংক্রমিত পাল্পের নিষ্কাসন

আপনার দাঁতের মধ্যে জমে থাকা সংক্রমিত বা নষ্ট পাল্প বের করার জন্য এক বিশেষ রকমের যন্ত্র (ফাইল) ব্যাবহার করা হয়, এই নষ্ট পাল্প বের করতে এক বা একাধিক দিন লাগতে পারে।

tooth stracture

৩। অ্যান্টিবায়োটিক-এর প্রয়োগ

একবার দাঁতের নষ্ট পাল্প বের করা হয়ে গেলে সেখানে অ্যান্টিবায়োটিক এর প্রলেপ দেওয়া হয় যাতে আক্রান্ত স্থানটি পুনরায় সংক্রমিত হতে না পারে।

ফিলিং এবং ক্রাউনিং

পাল্প বের করে নেওয়ার পর ক্যানালটিকে ভালো ভাবে পরিষ্কার করা হয় এবং ওই ফাঁকা স্থানে বিশেষ একরকম প্লাস্টার দিয়ে গর্তটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এই সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটির পর ওই দাঁতের উপর সেরামিক অথবা মেটালের ক্যাপ বা টুপি পরিয়ে দাঁতটিকে সম্পূর্ণ রূপে সুরক্ষিত করা হয়।

দাঁতের রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট (RCT) করার পূর্বে কি কি পরীক্ষার প্রয়োজন হয় ?

রুট ক্যানেল করার আগে দাঁতের কী অবস্থা, সেটা দেখার জন্য সাধারণত  এক্স-রে (X-Ray) ছাড়া আর কোনও প্রয়োজন হয় না তবে কিছু ক্ষেত্রে ডেন্টিস্টরা ব্লাড সুগার টেস্ট করার কথা বলে থাকেন।

x-ray before root cannel Treatment
রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট এর জন্য কত টাকা খরচ হয়?

এটি অনেকগুলি বিষয়ের উপর নির্ভর করে, যেমন আপনি কোন ক্লিনিকে করছেন, ট্রিটমেন্ট কত দিন ধরে করা হচ্ছে, দাঁতের উপরের ক্রাউনিং কি মেটাল, নাকি সেরামিক এর এছাড়াও অনেকগুলি বিষয়ের উপর নির্ভর করে। তবে একটি দাঁতের রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট এর জন্য ভারতীয় মুদ্রায় 3000 থেকে 9000 পর্যন্ত খরচ হতে পারে।

রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্টের পর দাঁতের যত্ন কি ভাবে নেবেন?     
  • রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্টের পর অতিরিক্ত শক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন।
  • অন্তত দুবার দাঁত ব্রাশ করুন। একবার, সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর আর আরেকবার রাতে খাবার খেয়ে ওঠার পর।
  • দাঁতের উপর অতিরিক্ত প্রেশার দিয়ে দাঁত মাজা থেকে বিরত রাখুন এবং সবসময় নরম ব্রাশ ব্যাবহার করুন, শক্ত টুথব্রাশ ব্যাবহারের ফলে আপনার দাঁতের এনামেল ক্রমে ক্রমে নষ্ট হতে থাকে ।
  • খাবরে চিনির পরিমাণ কমিয়ে আনুন, ঠাণ্ডা পানীয় এড়িয়ে চলুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *