ছেলেদের চুল পড়ার কারণ এবং চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

আমরা সব সময় মেয়েদের চুল পড়া নিয়ে আলোচনা করলেও চুল পড়ার কারণ এবং চুল পড়া বন্ধ করার উপায় নিয়ে খুব একটা আলোচনা করি না। যদিও ছেলেদের চুলপড়া এখন একটি ভয়ঙ্কর সমস্যা । এমন অনেক রোগী আছেন যারা চুল পড়ার ফলে  আবসাদে ভুগছেন । আজ আমাদের আলোচনার বিষয় হল  ছেলেদের চুল পড়ার কারন, চিকিৎসা এবং তার সমাধান ।

ছেলেদের চুল পড়ার কারণ কি ?

এই চুল পড়া রোগটার ৭টি স্টেজ আছে । প্রথম ধাপটায় অল্প চুল পড়তে শুরু করে এবং শেষ ধাপে পুরো চুল পড়ে গিয়ে মাথায় টাক পড়ে যায়।

ছেলেদের চুল পড়ার এই রোগটীকে মেডিকেল পরিভাষায় বলা হয়  Andro genetic alopecia । Androgen মানে হল আমাদের মেল হরমোন । মানে যে হরমোনটা আপনাকে ছেলে বানিয়েছে। আরো ভালো ভাবে বোঝাতে গেলে বলতে হয়, যে হরমোন আপনাকে পুরোপুরি পুরুষ করে তুলেছে অর্থাৎ আপনার পেশিবহুল গড়ন, আপনার ভারি কণ্ঠস্বর আপানার দাঁড়ি-গোঁফ ইত্যাদি। সমস্যা হল এই হরমোনটাই আবার মাথার চুল গুলোকে ফেলতে সাহায্য করে। আবার অনেক সময় দেখা যায় কিছু ওষুধ খেলে সাময়িক চুল পড়া বন্ধ থাকে কিন্তু ওষুধ বন্ধ করলে আবার চুল পড়তে শুরু করে ।সময় থাকতে সতর্ক হলে চুল পড়া থেকে নিস্তার পাওয়া সম্ভব।

চুল পড়া বন্ধ করার উপায় নিয়ে সবিস্তারে আলোচনা করা হল।

১। ওষুধের ব্যবহারঃ Minoxidil লোশান দিনে ২ বার ব্যবহার করতে পারেন এছাড়া Finasteride ট্যবলেট রোজ একটি করে খেলে চুল পড়া থেকে নিস্তার পেতে পারেন। তবে এটি দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা পদ্ধতি এবং সম্পূর্ণ পদ্ধতিটি চিকিৎসকের ত্বত্তাবধানেই নেওয়া উচিৎ।

Minoxidil লোশান
Minoxidil লোশান

২।লেজার থেরাপিঃ একটা সময় মনে করা হত লেজার থেরাপি চুল পড়া রোধে বিশেষ কার্যকর নয়, তবে 2016-র একটি সমীক্ষায় দেখা যায় Low-level laser therapy (LLLT) ছেলেদের চুল পড়া আটকাতে বিশেষ কার্যকারী এবং এটি নিরাপদও।

৩।ধূমপান ত্যাগ করুনঃ আপনি যদি একজন ধূমপায়ী হন তাহলে এটা নিশ্চয়ই জানেন এটি আপনার ফুসফুসের জন্য কতখানি ক্ষতিকর কিন্তু এটা জানেন কি এটি আপনার চুল পড়ারও একটি কারণ। দেখা গেছে যারা ধূমপান করেন তাদের চুল অল্প বয়সেই পাকে এবং চুলও পড়তে থাকে। অতএব যদি আপনি ধূমপান করেন তাহলে আজই ত্যাগ করুন।

৪।মাথার স্ক্যল্প ম্যাসাজ- জাপানে একটি পরীক্ষায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত ৪মিনিট করে ২৪ সপ্তাহ পর্যন্ত মাথার স্ক্যল্প ম্যাসাজ করেছেন তাদের চুল পড়া তো কম হয়ই পাশাপাশি চুলও ঘন হয়। তাই শুধু আরামের জন্যই নয় চুল পড়া বন্ধ করতেও স্ক্যল্প ম্যাসাজ কার্যকারী।

৫। পর্যাপ্ত জল পান- জল পানের উপকারিতা আমরা কম বেশী সকলেই জানি তাই চুলের স্বাস্থ্য বজায় রাখতেও শরীরে জলের পরিমাণ ঠিক রাখা চাই কারণ ত্বকের আদ্রতা কমলে চুল রুক্ষ হয়ে পড়তে শুরু করে।

৬। সুষম আহার-প্রোটিন এবং আয়রন সমৃদ্ধ খাবারের পাশাপাশি ওমেগা 3 ফ্যটি অ্যাসিড যুক্ত খাবার আপনার ডায়েটে অবশ্যই রাখুন। এই ধরনের খাবার আপনার চুলের পুষ্টি যোগায় এবং চুল পড়া আটকায়।

প্রোটিন জাতীয় খাবার
প্রোটিন জাতীয় খাবার

৭।স্ট্রেস কমানঃ স্ট্রেস থেকেও আপনার চুল পড়তে পারে। তাই স্ট্রেস কমান। নিয়মিত ব্যায়াম করুন পছন্দের গান শুনুন এবং রাতে ৮ ঘণ্টা ঘুমান।

৮। PRP থেরাপিঃ  ( প্লেটলেট রিচ প্লাসমা ) থেরাপি । এক্ষেত্রে  আপনার শরীর থেকে কিছুটা রক্ত নিয়ে তার থেকে প্লেটলেট বার করা হয় । প্লেটলেট রক্তের একটি উপাদান, সেটি  খুব সরু ছুঁচ দিয়ে চুলের গোঁড়ায় দেওয়া হয় । এতেও চুল পড়া আনেকটা কমে এবং নতুন চুলও গজায় ।

পিআরপি থেরাপি
PRP থেরাপি

৯। বায়োটিন যুক্ত খাবারঃ বায়োটিন একরকম ভিটামিন যা মূলত বিভিন্ন রকম বাদাম, ডিম, পেয়াজ, মিষ্টি আলু এবং ওটস পাওয়া যায়। এই ভিটামিন চুলের স্বাস্থ্যর জন্য খুবই উপকারী।

১০। পেয়াজের রসঃ দীর্ঘদিন ধরে চুল পড়ার সমস্যায় পেয়াজের রসের ব্যবহার হয়ে আসছে, এটি মূলত চুলের গোঁড়ায় সরাসরি প্রয়োগ করা হয়।

১১। ভৃঙ্গরাজ তেলঃ আনেকেই বলেন এটি Minoxidil লোশান এর থেকেও ভালো কাজ করে ভৃঙ্গরাজ তেল এবং চুল পড়া রোধে এর ব্যবহার আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও উল্লেখিত আছে।

১২। গ্রিন টিঃ শুধু রক্তচাপ কমাতেই নয় চুল পড়া আটকাতে গ্রিন টি খেয়ে দেখতে পারেন, মনে করা হয় গ্রিন টিতে থাকা polyphenolic নামক উপাদানটি আপনার চুল পড়া আটকাতে বিশেষ কার্যকারী।

গ্রিন টি
গ্রিন টি

এরপরেও যদি আপনার চুল পড়ার সমস্যা না কমে তা হলে অবশ্যই একজন Dermatologist  এর সঙ্গে দেখা করুন , এবং আলোচনার মাধ্যমে আপনার সমস্যার সমাধান করুন ।

1 Comment

  • Yoᥙ actually make it appear so easy along with yoսr presentation but I to
    find this matter to be really something that I feel I might by no means understand.

    It sort of feels too complex and very vast for me. I’m taking a look forward on your
    next post, I will try to get the hold of it!

  • Thеse are in fact wonderful іdеas in on the topic of blogging.

    You have touched sߋme nice factors here. Any way keep up wrinting.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *